আপনি একটা ওয়েবসাইট বানাতে চাচ্ছেন । কিন্তু জানানা যে ডোমেইন আসলে কি? একটা ওয়েবসাইট বানাতে সবচেয়ে জরুরী জিনিসটা হল ডোমেইন । আজ আমি আপনাদের জানাব ডোমেইন কি ? বা ডোমেইন নাম আসলে কি ? একটু সময় দিয়ে লিখাটা পরলে সবকিছু আপনার কাছে পরিষ্কার হয়ে যাবে।

 

আমরা যখন ইন্টারনেট এর ওয়েবসাইটে প্রবেশ করি, তখন অবশ্যয় একটা ডোমেইন এর মাধ্যমে সেই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করি। আমাদের যেমন একটা নাম থাকে ঠিক তেমনি প্রতিটা ওয়েবসাইট এর এক্তা নাম থাকে।

আমার নামে যদি কেও ডাকে তবে আমি কথা বলি। ঠিক তেমনি ডোমেইন এর নামে লিখে ওয়েব ব্রাউজার (Chorme, Mozila firefox, Safari, Opera and more) সার্চ করলে সেই ওয়েবসাইট আপনার সান্মে খুলে যাই।

ধরা যাক, আপনি আমার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবেন থলে আপনাকে কি করতে হবে ? আমার ওয়েবসাইটের ডোমেইন নামে  (MytecBD.Me)  লিখে ওয়েব ব্রাউজারে সার্চ করতে হবে। তাহলে আমার ওয়েবসাইটা আপনি দেখতে পাবেন।

আসাকরি এইটুকু আপনারা অনেকেই জানেন। ডোমেইন কি ? কত প্রকার ? ভালো ডোমেইন কেমন হয় এবং কোথা থেকে কিভাবে ডোমেইন কিনতে পারবেন ?

 

ডোমেইন কি ? (What is a domain ?)

ডোমেইন নাম বা DNS ( Domain Name System ) এমন একটা নামকরণ যা দিয়ে আপনি ইন্টারনেটের সার্ভারে থাকা যেকোনো একটি সাইট কে খুঁজে বের করতে পারবেন।

ইন্টারনেটের সার্ভারে যেকোনো হোস্টিংয়ে যদি একটা সাইট থাকে। এবং সেই সাইট একটা আইপি অ্যাড্রেস IP Address (Internet Protocol Address) থাকে। এবং আইপি অ্যাড্রেস মনে রাখা অনেক কঠিন এইজন্য আইপি এড্রেস এবং নাম একটা ডোমেইন নাম এক জায়গায় করে তৈরি করা হয়েছে ডোমেইন ।

একটা ডোমেইন নাম লিখে যখন একটা ওয়েব ব্রাউজারের সার্চ করা হয়। তখন সেই ডোমেইন নাম খুঁজে বের করে আপনার ওয়েবসাইট টা কোন সার্ভারে এবং কোন হোস্টিং এ আছে এবং তা আপনাকে দেখায়।

আইপি অ্যাড্রেস ছাড়া ডোমেইন নেম কোন ভাবেই কাজ করতে পারে না। আপনার ওয়েব ব্রাউজারে ডোমেইন নেম লিখে সার্চ করার পর, ডোমেইন নেমটি আইপি অ্যাড্রেসকে ট্র্যাক করে তারপর আপনার ওয়েবসাইটকে দেখায়।

প্রত্যেক ওয়েবসাইটের একটা আইপি এড্রেস আছে। আপনি চাইলেও ডোমেইন নেম ছাড়াও আইপি অ্যাড্রেস দিয়ে সে ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পারেন।

উদাহরন হিসেবে আমরা যদি আমাদের সবচেয়ে বড় সার্চ ইঞ্জিন গুগলকে ধরি। গুগোল সাইটে ঢোকার জন্য আমরা অবশ্যই google.com লিখে প্রবেশ করি। আপনারা কি জানেন যে এই google.com এরও একটা আইপি অ্যাড্রেস আছে যেটা আপনার ওয়েব ব্রাউজারের সার্চিং এ দিয়ে সার্চ করলে অটোমেটিকলি google.com এ প্রবেশ করবে।

বিশ্বাস হচ্ছে না এটা লিখে প্রবেশ করুন আর দেখুন 172.217.168.238

আইপি অ্যাড্রেস দিয়ে ওয়েবসাইটকে মনে রাখা অনেক কঠিন। এই জন্য আইপি অ্যাড্রেস এর বদলে তৈরি করা হয়েছে ডোমেইন নেম। যাতে আপনি যে কোন ওয়েবসাইটকে খুব তাড়াতাড়ি খুজে বের করতে পারেন।

এক কথায় বলতে গেলে ডোমেইন ট্র্যাক করে আইপিকে আইপি খুঁজে বের করে সার্ভার এবং হোস্টিং এবং তা প্রদর্শন করে আপনার ব্রাউজারে

এরপরে মনে হয়না আপনাকে ডোমেইন নিয়ে আর অন্য কিছু বলতে হবে

 

আরও কিছু জানুন


ডোমেইন কত প্রকার ? (How many types of domains ?)

ডোমেইন ৫ ধরনের হয়ে থাকে। আজ এই পাঁচ ধরনের ডোমেইন নিয়ে আলোচনা করব

1. Top-Level Domains (TLD)

এই ডোমেইনগুলো ইন্টারনেটে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয়। এই ডোমেইন গুলোর মান ইন্টারনেটে সবচেয়ে বেশি। একটা সাইটের যেটা লিখে আমরা প্রবেশ করি সেটা হচ্ছে ডোমেইন নাম। কিন্তু ডোমেইনটি হচ্ছে ডট এর পরের অংশ।

উদাহরণস্বরূপ যদি আমরা ধরি  (MytecBD.Me) এটা হচ্ছে আমার সাইট এখানে ডোমেইনটা হচ্ছে .Me

কিছু Top-Level Domains  বা TLD নিচে দেয়া হল

·         .Com

·         .Net

·         .Org

·         .Site

·         .Me

·         .Co

 

2. Country Code Top Level Domains (ccTLD)

TLD এরপরেই রয়েছে ccTLD ডোমেইনটি এই ডোমেইনটি শুধুমাত্র কোন একটা দেশকে নির্দিষ্ট করে বানানো হয় । আপনার তৈরি ওয়েবসাইট বা ব্লগ টি যদি কোন একটি নির্দিষ্ট দেশকে টার্গেট করে বানানো হয় সেটাই হচ্ছে এই Country Code Top Level Domains (ccTLD)

 

কিছু Country Code Top-Level Domains  বা TLD নিচে দেয়া হল

·         .Us (United State)

·         .Uk (United Kingdom)

·         .Bd (Bangladesh)

·         .Jp (Japan)

·         .Ca (Canada)

 

3. Generic Top-Level Domains (gTLDs)

তৃতীয় পর্যায় পেয়েছি আমরা এই ডোমেইনটা। এই ডোমেইনটা অন্য সাধারন ডোমেইনের চেয়ে একটু আলাদা। এই দুইটা সাধারণত কোন অর্গানাইজেশান অথবা কোন প্রতিষ্ঠান থেকে নেওয়া হয়ে থাকে ।

Generic Top-Level Domains এর উদাহরন

·         .Edu

·         .mil

 

4. Second-Level Domains

শ্রেণিবিন্যাসের দিক থেকে ডোমেইনটি দ্বিতীয় স্তরে পরে ।এই জন্য এই ভাববেন না যে এই ডোমেইনটি অন্য ডোমেইন এর তুলনায় মান কম। এই ডোমেইনটি শেষের দুইটা ভাগ থাকে এই জন্য এই ডোমেইন কে Second-Level Domains বলে।

উদাহরণ হিসেবে বলা যায়

·         .com.bd

·         .gov.bd

 

5. Third Level Domains

এই ডোমেইনটা যে কোন ডোমেইন এর সাথে কাজ করে আমরা যখন কোন ডোমেইন এর আগে অন্য কিছু এড করি সেটাকে Third Level Domains  বলা হয়।

উ্দাহরন হিসেবে দেখুন :

·         apps.domain.com

·         support.domain.com

·         blog.domain.com

·         store.domain.com


ভালো ডোমেইন কেমন হয় ? কোথা থেকে কিভাবে নিবেন?

আপনি যদি আপনার নিজের তৈরি ব্লগে ডোমেইন এড করতে চান? তাহলে অবশ্যই আপনাকে TLD নিতে হবে। এই ডোমেইনটি অবশ্যই আপনাকে আপনার লেখা রিলেটেড রাখতে হবে । এবং ডোমেইন নামের সাথে কোন প্রকার সংখ্যা অথবা যেমন (-_) ইউজ করবেন না। ডোমেইন নামটি অবশ্যই আপনাকে ছোট রাখতে হবে যাতে মানুষ খুব সহজে মনে রাখতে পারে।

একটা ডোমেইন সর্বনিম্ন এক বছরের জন্য কেনা যায়। আপনি চাইলে একটা ডোমেইন চার থেকে পাঁচ বছরের জন্য কিনতে পারেন। আপনি যত সময়ের জন্য ডোমেইন কিনবেন তারপরে ডোমেইনটা আবার রিনিউ করতে হবে।

একটা Top Level Domain এর প্রাইস 500 থেকে 2000 এর মধ্যে হয়ে থাকে। একটা ডোমেইন কেনার আগে অবশ্যই আপনাকে জেনে নিতে হবে কোন Domain Service Provider সবচেয়ে ভালো। ভালো Domain Service Provider থেকে ডোমেইন কিনতে হবে।

কিছু Domain Service Provider নাম নিচে দেয়া হল

1.       Domain.com

2.       GoDaddy

3.       HostGator

4.       Namecheap

5.       Bluehost

আপনি যদি ডোমেইন কিনতে চান তাহলে উপরের দেওয়া সাইট গুলো থেকে ডোমেইন কিনতে পারেন কোনো সন্দেহ ছাড়া।

ডোমেইন কেনার জন্য আপনাকে যা করতে হবে। যে ওয়েবসাইট থেকে আপনি ডোমেইন কিনতে চাচ্ছেন সেই ওয়েবসাইটে গিয়ে আপনার ডোমেইন নাম লিখে সার্চ করুন। যদি ডোমেইন নামটি কেউ না কিনে থাকে তাহলে দেখবেন আপনি চেক আউট অপশন পেয়ে যাবেন। তারপর আপনি ঐ সাইডে একটা একাউন্ট খুলে নিন। ডোমেইনটা আপনার একাউন্টে এড করে নিন। অবশ্যই আপনার ডুয়েল কারেন্সি কার্ড থাকতে হবে। এখন আপনি আপনার হোস্টিং এ ডোমেইনটি এড করে চালাতে পারবেন।

 

আশা করতেছি এই পোস্ট টি পড়ার পর আপনারা ডোমেইন সম্বন্ধে সবকিছু জেনে যাবেন। এই পোস্টটি যদি আপনাদের কাছে ভাল লাগে, মনে হয় আপনার বন্ধুকে এই পোস্টটি দেখানোর প্রয়োজন হলে অবশ্যই শেয়ার করবেন।